আযানের সময় বৃদ্ধাঙ্গুল চুমু দিয়ে চোখে লাগানো মুস্তাহাব কর্ম

আযানের সময় বৃদ্ধাঙ্গুল চুমু দিয়ে চোখে লাগানো মুস্তাহাব কর্ম

আযানের সময় বৃদ্ধাঙ্গুল চুমু দিয়ে চোখে লাগানো মুস্তাহাব কর্ম।


✴️ আজানের ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ’ শ্রবণ করে প্রথমবার ‘সাল্লাল্লাহু আলাইকা ইয়া রাসুলাল্লাহ!’ এবং দ্বিতীয়বার ‘কাররাত আইনি বিকা ইয়া রাসুলাল্লাহ!’ পাঠ করা ও বৃদ্ধাঙ্গুল চুমু দিয়ে চোখে লাগিয়ে ‘আল্লাহুম্মা মাত্তিয়নি বিস-সাময়ি ওয়াল বাস্বার’ পাঠ করা ফাক্বীহগণের নিকট মুস্তাহাব কর্ম। যেমন-
ﻳﺴﺘﺤﺐ ﺃﻥ ﻳﻘﺎﻝ ﻋﻨﺪ ﺳﻤﺎﻉ اﻷﻭﻟﻰ ﻣﻦ اﻟﺸﻬﺎﺩﺓ: ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻚ ﻳﺎ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ، ﻭﻋﻨﺪ اﻟﺜﺎﻧﻴﺔ ﻣﻨﻬﺎ: ﻗﺮﺕ ﻋﻴﻨﻲ ﺑﻚ ﻳﺎ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ، ﺛﻢ ﻳﻘﻮﻝ: اﻟﻠﻬﻢ ﻣﺘﻌﻨﻲ ﺑﺎﻟﺴﻤﻊ ﻭاﻟﺒﺼﺮ ﺑﻌﺪ ﻭﺿﻊ ﻇﻔﺮﻱ اﻹﺑﻬﺎﻣﻴﻦ ﻋﻠﻰ اﻝﻋﻴﻨﻲﻧ ﻓﺈﻧﻪ – ﻋﻠﻴﻪ اﻟﺴﻼﻡ – ﻳﻜﻮﻥ ﻗﺎﺋﺪا ﻟﻪ ﺇﻟﻰ اﻟﺠﻨﺔ، ﻛﺬا ﻓﻲ ﻛﻨﺰ اﻟﻌﺒﺎﺩ. اﻩـ. ﻗﻬﺴﺘﺎﻧﻲ، ﻭﻧﺤﻮﻩ ﻓﻲ اﻟﻔﺘﺎﻭﻯ اﻟﺼﻮﻓﻴﺔ. ﻭﻓﻲ ﻛﺘﺎﺏ اﻟﻔﺮﺩﻭﺱ «ﻣﻦ ﻗﺒﻞ ﻇﻔﺮﻱ ﺇﺑﻬﺎﻣﻪ ﻋﻨﺪ ﺳﻤﺎﻉ ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻣﺤﻤﺪا ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ ﻓﻲ اﻷﺫاﻥ ﺃﻧﺎ ﻗﺎﺋﺪﻩ ﻭﻣﺪﺧﻠﻪ ﻓﻲ ﺻﻔﻮﻑ اﻟﺠﻨﺔ
অর্থাৎ! আযানের সময় প্রথমবার ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ’ শ্রবণ করে ‘সাল্লাল্লাহু আলাইকা ইয়া রাসুলাল্লাহ’ পাঠ করা এবং দ্বিতীয়বার শ্রবণ করার সময় ‘কাররাত আইনি বিকা ইয়া রাসুলাল্লাহ! অতঃপর দুই বৃদ্ধাঙ্গুলের নখ চোখে লাগিয়ে ‘আল্লাহুম্মা মাত্তিয়নি বিস-সাময়ি ওয়াল বাস্বার’ পাঠ করা মুস্তাহাব।কারণ নবী করীম সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলাইহি ওয়া সাল্লাম তার জন্য কেয়ামতের দিন জান্নাতে প্রবেশ করানোর ক্ষেত্রে অভিভাবক হবেন। অনুরূপ কান্জুল-এবাদ ও ফাতোয়া সুফিয়ার মধ্যেও লিপিবদ্ধ আছে। তাছাড়া ‘কিতাবুল ফিরদাউস’ এর মধ্যে বর্ণিত হয়েছে, যে ব্যক্তি আযানে ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ’ পাঠ করার সময় বৃদ্ধাঙ্গুলের নখে চুমু দিবে কেয়ামতের দিন আমি তার নেতা ও জান্নাতি লাইনে প্রবেশকারী হব।
{{ হাসিয়া ইবনে আবেদীন খন্ড-1 পৃষ্ঠা-398 }}
ﻓﺎﺋﺪﺓ: ﺫﻛﺮ اﻟﻘﻬﺴﺘﺎﻧﻲ ﻋﻦ ﻛﻨﺰ اﻟﻌﺒﺎﺩ ﺃﻧﻪ ﻳﺴﺘﺤﺐ ﺃﻥ ﻳﻘﻮﻝ ﻋﻨﺪ ﺳﻤﺎﻉ اﻷﻭﻟﻰ ﻣﻦ اﻟﺸﻬﺎﺩﺗﻴﻦ ﻟﻠﻨﺒﻲ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻚ ﻳﺎ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ ﻭﻋﻨﺪ ﺳﻤﺎﻉ اﻟﺜﺎﻧﻴﺔ ﻗﺮﺕ ﻋﻴﻨﻲ ﺑﻚ ﻳﺎ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ اﻟﻠﻬﻢ ﻣﺘﻌﻨﻲ ﺑﺎﻟﺴﻤﻊ ﻭاﻟﺒﺼﺮ ﺑﻌﺪ ﻭﺿﻊ ﺇﺑﻬﺎﻣﻴﻪ ﻋﻠﻰ ﻋﻴﻨﻲﻫ ﻓﺈﻧﻪ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﻳﻜﻮﻥ ﻗﺎﺋﺪا ﻟﻪ ﻓﻲ اﻟﺠﻨﺔ ﻭﺫﻛﺮ اﻟﺪﻳﻠﻤﻲ ﻓﻲ اﻟﻔﺮﺩﻭﺱ ﻣﻦ ﺣﺪﻳﺚ ﺃﺑﻲ ﺑﻜﺮ اﻟﺼﺪﻳﻖ ﺭﺿﻲ اﻟﻠﻪ ﻋﻨﻪ ﻣﺮﻓﻮﻋﺎ ﻣﻦ ﻣﺴﺢ اﻟﻌﻴﻦ ﺑﺒﺎﻃﻦ ﺃﻧﻤﻠﺔ اﻟﺴﺒﺎﺑﺘﻴﻦ ﺑﻌﺪ ﺗﻘﺒﻴﻠﻬﻤﺎ ﻋﻨﺪ ﻗﻮﻝ اﻟﻤﺆﺫﻥ ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻣﺤﻤﺪا ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ ﻭﻗﺎﻝ: ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻣﺤﻤﺪا ﻋﺒﺪﻩ ﻭﺭﺳﻮﻟﻪ ﺭﺿﻴﺖ ﺑﺎﻟﻠﻪ ﺭﺑﺎ ﻭﺑﺎﻹﺳﻼﻡ ﺩﻳﻨﺎ ﻭﺑﻤﺤﻤﺪ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﻧﺒﻴﺎ ﺣﻠﺖ ﻟﻪ ﺷﻔﺎﻋﺘﻲ اﻩـ ﻭﻛﺬا ﺭﻭﻱ ﻋﻦ اﻟﺨﻀﺮ ﻋﻠﻴﻪ اﻟﺴﻼﻡ ﻭﺑﻤﺜﻠﻪ ﻳﻌﻤﻞ ﻓﻲ اﻟﻔﻀﺎﺋﻞ
অর্থাৎ! ফায়দা ইমাম কাহাস্তানি কান্জুন এবাদ হতে উল্লেখ করেছেন যে, আজান শ্রবণকারীর জন্য মুস্তাহাব হল, প্রথমবার ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ’ শ্রবণ করে ‘সাল্লাল্লাহু আলাইকা ইয়া রাসুল আল্লাহ!’ পাঠ করা এবং দ্বিতীয়বার শ্রবণ করে দুই বৃদ্ধাঙ্গুল চোখে লাগিয়ে ‘কাররাত আইনি বিকা ইয়া রাসুলাল্লাহ! ‘আল্লাহুম্মা মাত্তিয়নি বিস-সাময়ি ওয়াল বাস্বার’ পাঠ করা। এবং ইমাম দায়লামী রহমতুল্লাহি আলাইহি মুসনাদুল ফেরদৌসে হযরত আবু বিকর সিদ্দিক রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে মারফু হাদিস বর্ণনা করেছেন যে, যে ব্যক্তি মুআয্যিনের ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদুর রাসুলুল্লাহ’ বাক্য পাঠ করান সময় বৃদ্ধাঙ্গুলি চুম্বন করে চোখে মাসাহ করবে অতঃপর আশহাদু আন্না মুহাম্মাদান্ আবদুহু ওয়া রাসুলূহু রাদিতু বিল্লাহি রাব্বান ওয়া বিল ইসলামে দিনান্ ওয়াবি মুহাম্মাদিন নাবিয়ান’ পাঠ করবে কেয়ামতের দিন তার জন্য সুপারিশ করা আমার উপর ওয়াজিব হয়ে যাবে। অনুরূপ হযরত খিজির আলাইহিস সালাম হতেও হাদিস বর্ণিত হয়েছে। আর এ সমস্ত হাদিস ফজিলত সংক্রান্ত বিষয়ে গ্রহণযোগ্য।
{{ হাশিয়াতুত্ব ত্বাহতাবী আলা মারাকিল ফালাহ খন্ড-1 পৃষ্ঠা-205-206 }}
✴️ বিশেষ দ্রষ্টব্য:- অনেক মানুষকে দেখা যায় আযান শ্রাবণ করার সময় শুধু বৃদ্ধাঙ্গুলি চুম্বন করাকেই আজানের উত্তরের ক্ষেত্রে যথেষ্ট মনে করে বাকি সমস্ত বাক্যগুলি পাঠ বাদ দিয়ে দেয় এবং ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ’এর স্থানে ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ’ পাঠ করে না শুধু ‘সাল্লাল্লাহু আলাইকা ইয়া রাসুলাল্লাহ! পাঠ করে। এটা সঠিক পদ্ধতি নয় বরং সঠিক নিয়ম হলো- আযানের সমস্ত বাক্যগুলি মুআয্যিনের সাথে পাঠ করতে হবে এবং ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ’ পাঠের সময় প্রথমে ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ’ পাঠ করতে হবে অতঃপর ‘সাল্লাল্লাহু আলাইকা ইয়া রাসুলাল্লাহ’ পাঠ করতে হবে। তদ্রুপ দ্বিতীয়বার প্রথমে ‘আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ’ পাঠ করতে হবে অতঃপর ‘কার্রাত আইনী বিকা ইয়া রাসুলাল্লাহ’ পাঠ করতে হবে।
وما توفيقي الا بالله العلي العظيم و الصلاة والسلام على حبيبه الكريم صلى الله عليه وسلم
⁦✍️⁩⁦মুফতী আমজাদ হোসাইন সিমনানী প্রেসিডেন্ট সুন্নি মিশন✍️⁩ পরিচালক:- সিমনানী রিসার্চ সেন্টার✍️
🌍 থানা- কুশমন্ডি, জেলা- দক্ষিন দিনাজপুর, রাজ্য- পশ্চিমবঙ্গ, ভারত🌍
নোট:- কোন মসআলা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হলে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন আমাদের
SIMNANI RESEARCH CENTRE & HOLY-WAY TEAM

সমাজের পাশে দ্বীনের খেদমতের জন্য সব সময় আছে।*আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য-এই লিংকে ক্লিক করুন www.keyofislam.com

আমাদের Real Sunni TvHoly way ইউটিউব চ্যানেল গুলি কে  SUBSCRIBE করুন

আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

Leave a Reply

This Post Has 2 Comments

  1. Nure simna

    Nice post

  2. Anonymous

    Jazaakallahu khaira