ইক্বামতের বাক্যগুলো দুই দুই বার করে পাঠ করতে হবে

ইক্বামতের বাক্যগুলো দুই দুই বার করে পাঠ করতে হবে

ইক্বামতের বাক্যগুলো দুই দুই বার করে পাঠ করতে হবে

✴️ সম্মানিত পাঠকবৃন্দ! বহু জায়গায় লক্ষ্য করা যায় মুআয্যিন ইকামতের সময় ইকামতের বাক্যগুলো এক এক বার করে পাঠ করে থাকেন অথচ সহীহ শুদ্ধ পদ্ধতি ও হাদিস অনুযায়ী ইকামতের বাক্যগুলি দুই দুই বার করে পাঠ করতে হবে। যা নিম্নে প্রদত্ত হাদীসসমূহ তে স্পষ্টতই প্রতীয়মান হয়।
عَنْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ زَيْدٍ قَالَ: كَانَ أَذَانُ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ شَفْعًا شَفْعًا فِي الأَذَانِ وَالإِقَامَةِ. قَالَ أَبُو عِيسَى: حَدِيثُ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ زَيْدٍ رَوَاهُ وَكِيعٌ عَنِ الأَعْمَشِ عَنْ عَمْرِو بْنِ مُرَّةَ عَنْ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ أَبِي لَيْلَى قَالَ: حَدَّثَنَا أَصْحَابُ مُحَمَّدٍ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَنَّ عَبْدَ اللَّهِ بْنَ زَيْدٍ رَأَى الأَذَانَ فِي الْمَنَامِ.
অর্থাৎ!! আবদুল্লাহ ইবনু যাইদ রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের আযান ও ইকামাতের বাক্যগুলো জোড়ায় জোড়ায় ছিল (দুই দুইবার বলা হত)।
আবূ ঈসা বলেন, আব্দুল্লাহ ইবনু যাইদের হাদিসটি ওয়াকী বর্ণনা করেছেন আমাশ হতে তিনি আমর ইবনু মুররাহ হতে, তিনি আব্দুর রহমান ইবনু আবী লাইলা হতে, তিনি বলেছেনঃ মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের সাহাবাগণ বর্ণনা করেছেন যে, আবদুল্লাহ ইবনু যাইদ রাদিয়াল্লাহু আনহু আযান স্বপ্নে দেখেছেন।
{{ সুনানে তিরমিযী হাদিস নং-194 }}
✴️ ইমাম তিরমিজি রহমতুল্লাহি আলাইহি বলেন-
قَالَ بَعْضُ أَهْلِ الْعِلْمِ الأَذَانُ مَثْنَى مَثْنَى وَالإِقَامَةُ مَثْنَى مَثْنَى. وَبِهِ يَقُولُ سُفْيَانُ الثَّوْرِيُّ وَابْنُ الْمُبَارَكِ وَأَهْلُ الْكُوفَةِ
অর্থাৎ! একাধিক ইমামগণ বলেছেন আযানের বাক্যগুলো দুই দুই বার পাঠ করতে হবে। তদ্রুপ ইকামতের বাক্যগুলো দুই দুইবার করে পাঠ করতে হবে। আর এটাই মত পোষণ করেছেন ইমন সুফিয়ান সাওরি, ইমাম আব্দুল্লাহ ইবনে মুবারক এবং কুফাবাসী সমস্ত ইমামগণ।
{{ সুনানে তিরমিযী শরীফ }}
ﻋﻦ ﻋﺒﺪ اﻟﻠﻪ ﺑﻦ ﺯﻳﺪ، ﺭﺿﻲ اﻟﻠﻪ ﻋﻨﻪ ﻗﺎﻝ: «ﻛﺎﻥ ﺃﺫاﻥ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﻭﺇﻗﺎﻣﺘﻪ ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ»
অর্থাৎ! হযরত আবদুল্লাহ ইবনে যাঈদ রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম এর আযান ও ইকামতের বাক্যগুলি দুই দুইবার করে পাঠ করা হতো।
{{ আল আহাদ ওয়াল মাসানী খন্ড-3 পৃষ্ঠা-476 হাদিস নং-1938 }}
ﻋﻦ ﻋﺒﺪ اﻟﻠﻪ ﺑﻦ ﺯﻳﺪ اﻷﻧﺼﺎﺭﻱ ﺳﻤﻌﺖ «ﺃﺫاﻥ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﻓﻜﺎﻥ ﺃﺫاﻧﻪ ﻭﺇﻗﺎﻣﺘﻪ ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ»
অর্থাৎ! হযরত আব্দুল্লাহ বিন যাঈদ আনসারী রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাই সালাম এর আযান শুনেছি। তাঁর আজান ও ইকামত (এর বাক্যগুলি ) দুই দুই বার করে পাঠ করা হতো।
{{ মুস্তাখরাজ আবু আওয়ানা খন্ড-1 পৃষ্ঠা-276 হাদিস নং-965 }}
ﻋﻦ ﻋﺒﺪ اﻟﺮﺣﻤﻦ ﺑﻦ ﺃﺑﻲ ﻟﻴﻠﻰ، ﻗﺎﻝ: ﺛﻨﺎ ﺃﺻﺤﺎﺏ ﻣﺤﻤﺪ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﺃﻥ ﻋﺒﺪ اﻟﻠﻪ ﺑﻦ ﺯﻳﺪ: ” ﺟﺎء ﺇﻟﻰ اﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ، ﻓﻘﺎﻝ: ﻳﺎ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ ﺭﺃﻳﺖ ﻓﻲ اﻟﻤﻨﺎﻡ ﻛﺄﻥ ﺭﺟﻼ ﻗﺎﺋﻤﺎ ﻭﻋﻠﻴﻪ ﺛﻮﺑﺎﻥ ﺃﺧﻀﺮاﻥ ﻋﻠﻰ ﺟﺬﻣﺔ ﺣﺎﺋﻂ، ﻓﺄﺫﻥ ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ، ﻭﺃﻗﺎﻡ ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ “
অর্থাৎ! হযরত আব্দুর রহমান বিন আবু লায়লা রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সাহাবাগণ বলেছেন, হযরত আব্দুল্লাহ বিন যাঈদ রাদিআল্লাহু আনহু নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নিকট এসে আরজ করলেন, ইয়া রাসূলাল্লাহ! আমি স্বপ্নে একজন ব্যক্তিকে দন্ডায়মান অবস্থায় দেখলাম তার ওপর সবুজ কাপড় ছিল তিনি একটি দেওয়ালে চেপে দুই দুইবার বাক্যগুলো পাঠ করে আজান দিলেন তদ্রুপ দুই দুইবার বাক্যগুলো পাঠ করে ইকামত দিলেন।
{{ আল আওসাত ফি সুনান হাদিস নং-1179 }}
ﻋﻦ ﻋﺒﺪ اﻟﺮﺣﻤﻦ ﺑﻦ ﺃﺑﻲ ﻟﻴﻠﻰ ﻗﺎﻝ: ﺃﺧﺒﺮﻧﻲ ﺃﺻﺤﺎﺏ ﻣﺤﻤﺪ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ , ﺃﻥ ﻋﺒﺪ اﻟﻠﻪ ﺑﻦ ﺯﻳﺪ اﻷﻧﺼﺎﺭﻱ ﺭﺃﻯ ﻓﻲ اﻟﻤﻨﺎﻡ اﻷﺫاﻥ ﻓﺄﺗﻰ اﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ , ﻓﺄﺧﺒﺮﻩ ﻓﻘﺎﻝ: «ﻋﻠﻤﻪ ﺑﻼﻻ» ﻓﺄﺫﻥ ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ , ﻭﺃﻗﺎﻡ ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ
অর্থাৎ! হযরত আব্দুর রহমান বিন আবু লায়লা রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমাকে নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সাহাবীগণ সংবাদ দিয়েছেন যে, হযরত আব্দুল্লাহ বিন যাঈদ আনসারী রাদিয়াল্লাহু আনহু স্বপ্নে আজান প্রত্যক্ষ করেছেন। অতঃপর তিনি নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের দরবারে উপস্থিত হয়ে তা ব্যক্ত করেন এবং নবী কারীম সাল্লাল্লাহু সালাম তাকে হুকুম প্রদান করেন হযরত বেলাল রাদিয়াল্লাহু আনহুকে আজান শিখানোর। তিনি দুই দুইবার করে আজান এবং দুই দুইবার করে ইকামতের বাক্য গুলো পাঠ করেন।
{{ শারহে মায়ানিল আসার হাদিস নং-824 }}
ﻋﻦ ﻣﻌﺎﺫ ﺑﻦ ﺟﺒﻞ، ﻗﺎﻝ: ﺟﺎء ﺭﺟﻞ ﻣﻦ اﻷﻧﺼﺎﺭ ﺇﻟﻰ اﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﻓﻘﺎﻝ: ﺇﻧﻲ ﺭﺃﻳﺖ ﻓﻲ اﻟﻨﻮﻡ ﻛﺄﻧﻲ ﻣﺴﺘﻴﻘﻆ ﺃﺭﻯ ﺭﺟﻼ ﻧﺰﻝ ﻣﻦ اﻟﺴﻤﺎء ﻋﻠﻴﻪ ﺑﺮﺩاﻥ ﺃﺧﻀﺮاﻥ، ﻧﺰﻝ ﻋﻠﻰ ﺟﺬﻡ ﺣﺎﺋﻂ ﻣﻦ اﻟﻤﺪﻳﻨﺔ، ﻓﺄﺫﻥ ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ، ﺛﻢ ﺟﻠﺲ، ﺛﻢ ﺃﻗﺎﻡ، ﻓﻘﺎﻝ: ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ. ﻗﺎﻝ: «ﻧﻌﻢ ﻣﺎ ﺭﺃﻳﺖ، ﻋﻠﻤﻬﺎ ﺑﻼﻻ» ﻗﺎﻝ: ﻗﺎﻝ ﻋﻤﺮ: «ﻗﺪ ﺭﺃﻳﺖ ﻣﺜﻞ ﺫﻟﻚ ﻭﻟﻜﻨﻪ ﺳﺒﻘﻨﻲ»
অর্থাৎ! হযরত মুয়াদ ইবনে জাবাল রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেছেন: আনসারদের মধ্য হতে এক ব্যক্তি নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর নিকট এসে বললেনঃ আমি ঘুমের মধ্যে এমন অবস্থায় দেখলাম যেন আমি জেগে আছি, এক ব্যক্তি আকাশ থেকে নেমে এসলেন, উপর সবুজ রঙের কাপড় পড়ে একটি দেওয়ালের গায়ে নামছে। তিনি দুই দুই বার বাক্য পাঠ করে আযান দিলেন। তারপর বসে পড়লেন অতঃপর তিনি দুই দুই বার বাক্য পাঠ করে ইক্বামত দিলেন: তিনি বললেন “হ্যাঁ, তুমি যা দেখেছো তা বিলাল (রাদিয়াল্লাহু আনহু) কে শিখিয়ে দাও।” তিনি বলেছেন: ওমর বলেছেন: “আমি এরকম কিছু দেখেছি, তবে তিনি আমার আগে ছিলেন।”
{{ মুসনাদ আহমাদ হাদিস নং-22027 }}
✴️ প্রিয় মুসলিম সমাজ! উপরোক্ত হাদিস সমূহ হতে কয়েকটি বিষয় প্রমাণিত হয় যথা (১) হযরত যাঈদ রাদিআল্লাহু আনহু স্বপ্নে আযান ও ইকামত প্রত্যক্ষ করেছেন। (২) হযরত যাঈদ রাদিআল্লাহু আনহু হযরত বেলাল রাদিয়াল্লাহু আনহুকে দুই দুই বার করে ইকামতের বাক্যগুলো শিখিয়েছেন। (৩) হযরত ইমাম সুফিয়ান সাওরী, ঈমাম আব্দুল্লাহ ইবনে মুবারক ও কোফা বাসি সমস্ত ইমামগণের মত হল ইকামতের বাক্যগুলো দুই দুই বার পাঠ করা।
✴️ হযরত বেলাল রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহুর কয়েকটি সহীহ সনদে বর্ণিত আযান ও ইকামত সংক্রান্ত হাদিস নিম্নে প্রদত্ত হলো, যা থেকে দিবালোকের ন্যায় প্রতীয়মান হয় যে, হযরত বেলাল রাদিয়াল্লাহু আনহু ইকামতের বাক্যগুলো দুই দুইবার করে পাঠ করতেন-
ﻋﻦ ﺃﺑﻲ ﺟﺤﻴﻔﺔ ﻗﺎﻝ: «ﺃﺫﻥ ﺑﻼﻝ ﻟﻠﻨﺒﻲ – ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ – ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ، ﻭﺃﻗﺎﻡ ﻣﺜﻞ ﺫﻟﻚ».
অর্থাৎ! হযরত আবু হুজাইফা রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, হযরত বেলাল রাদিয়াল্লাহু আনহু নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের জন্য দুই দুই বার করে বাক্যগুলো পাঠ করে আযান এবং অনুরূপ দুই দুইবার বাক্যগুলো পাঠ করে ইকামত দিলেন।
{{ মাজমাউজ জাওয়ায়েদ খন্ড-1 পৃষ্ঠা-330 হাদিস নং-1861,, মুজামে কাবীর তাবরানী খন্ড-22 পৃষ্ঠা-101 হাদিস নং-246,, সুনানে দারে কুতনী খন্ড-1 পৃষ্ঠা-453 হাদিস নং-939,, }}
✴️ ইমাম হাইসামী রহমাতুল্লাহ আলাইহি বলেন-
ﺭﻭاﻩ اﻟﻄﺒﺮاﻧﻲ ﻓﻲ اﻷﻭﺳﻂ ﻭاﻟﻜﺒﻴﺮ، ﻭﺭﺟﺎﻟﻪ ﺛﻘﺎﺕ
অর্থাৎ! হাদিসটি ইমাম তাবরানী রাহমাতুল্লাহি আলাইহি মুজামে আওসাত ও কাবীর গ্রন্থে বিশ্বস্ত বর্ণনাকারী হতে বর্ণনা করেছেন।
ﻋﻦ ﻋﻮﻥ ﺑﻦ ﺃﺑﻲ ﺟﺤﻴﻔﺔ , ﻋﻦ ﺃﺑﻴﻪ , ﺃﻥ ﺑﻼﻻ «ﻛﺎﻥ ﻳﺆﺫﻥ ﻟﻠﻨﺒﻲ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ مثنى ﻣﺜﻨﻰ ﻭﻳﻘﻴﻢ ﻣﺜﻨﻰ مثنى
অর্থাৎ! হযরত আউন বিন আবু জুহাইফা রাদিয়াল্লাহু আনহু তাঁর পিতার সূত্রে বর্ণনা করেন যে, হযরত বেলাল রাদিয়াল্লাহু আনহু নবী কারীম সাল্লাল্লাহু ওয়া সাল্লাম এর জন্য দুই দুইবার বাক্য পাঠ করে আযান দিতেন এবং দুই দুইবার বাক্য পাঠ করে ইকামত দিতেন।
{{ সুনানে দারে কুতনী খন্ড-1 পৃষ্ঠা-453 হাদিস নং-939,, আল- জাওহারুন নাকি খন্ড-1 পৃষ্ঠা-423 }}
ﻋﻦ اﻷﺳﻮﺩ، ﻋﻦ ﺑﻼﻝ «ﺃﻧﻪ ﻛﺎﻥ ﻳﺜﻨﻲ اﻷﺫاﻥ , ﻭﻳﺜﻨﻲ اﻹﻗﺎﻣﺔ»
অর্থাৎ! হযরত আসওয়াদ রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। হযরত বেলাল রাদিয়াল্লাহু আনহু আযান ও ইকামতের বাক্যগুলো দুই দুইবার করে পাঠ করতেন।
{{ শারহে মায়ানিল আসার হাদিস নং-826,, সুনানে দারে কুতনী খন্ড-1 পৃষ্ঠা-453 হাদিস নং-940 }}
ﻋﻦ اﻷﺳﻮﺩ , ﻋﻦ ﺑﻼﻝ , ﻗﺎﻝ: «ﻛﺎﻥ ﺃﺫاﻧﻪ ﻭﺇﻗﺎﻣﺘﻪ ﻣﺮﺗﻴﻦ ﻣﺮﺗﻴﻦ
অর্থাৎ! হযরত আসওয়াদ রাদিয়াল্লাহু আনহু হযরত বেলাল রাদিয়াল্লাহু আনহু প্রসঙ্গে বর্ণনা করেন যে, তাঁর আযান ও ইকামতের বাক্যগুলো দুই দুইবার পাঠ করা হতো।
{{ সুনানে দারে কুতনী খন্ড-1 পৃষ্ঠা-453 হাদিস-941,,
ﻋﻦ ﺳﻮﻳﺪ ﺑﻦ ﻏﻔﻠﺔ، ﻗﺎﻝ: «ﺳﻤﻌﺖ ﺑﻼﻻ، ﻳﺆﺫﻥ ﻣﺜﻨﻰ , ﻭﻳﻘﻴﻢ ﻣﺜﻨﻰ»
অর্থাৎ! হযরত সুআঈদ বিন গাফলা রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি হযরত বেলাল রাদিয়াল্লাহু আনহুকে দুই দুইবার বাক্য প্রয়োগ করে আযান দিতে শুনেছি। তদ্রুপ দুই দুই বার বাক্যগুলো পাঠ করে ইকামত দিতে শুনেছি।
{{ শারহে মায়ানিল আসার হাদিস নং-828,, আল- জাওহারুন নাকি খন্ড-1 পৃষ্ঠা-425 }}
((হাদিসটি গ্রহণযোগ্য সনদে বর্ণিত হয়েছে))
✴️ তাছাড়া হযরত আবু মাহজুরা রাদিয়াল্লাহু আনহু হলেন সেই ভাগ্যবান সাহাবী যাকে নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বহু সাহাবীগণের মধ্য হতে আযান ও ইকামতের জন্য নির্বাচন করে আযান ও ইকামতের বাক্যগুলো নিজেই শিখিয়েছেন। এবং আবু মাহজুরা রাদিয়াল্লাহু আনহুর সেই সমস্ত হাদিস হতে ইকামতের বাক্যগুলো দুই দুইবার করে পাঠ করা প্রমাণিত। এ সংক্রান্ত কিছু হাদিস নিম্নে প্রদত্ত হলো-
ﻗﺎﻝ: ﻭﻋﻠﻤﻨﻲ اﻹﻗﺎﻣﺔ ﻣﺮﺗﻴﻦ: «اﻟﻠﻪ ﺃﻛﺒﺮ. اﻟﻠﻪ ﺃﻛﺒﺮ. اﻟﻠﻪ ﺃﻛﺒﺮ. اﻟﻠﻪ ﺃﻛﺒﺮ، ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻻ ﺇﻟﻪ ﺇﻻ اﻟﻠﻪ، ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻻ ﺇﻟﻪ ﺇﻻ اﻟﻠﻪ، ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻣﺤﻤﺪا ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ، ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻣﺤﻤﺪا ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ، ﺣﻲ ﻋﻠﻰ اﻟﺼﻼﺓ، ﺣﻲ ﻋﻠﻰ اﻟﺼﻼﺓ، ﺣﻲ ﻋﻠﻰ اﻟﻔﻼﺡ، ﺣﻲ ﻋﻠﻰ اﻟﻔﻼﺡ، ﻗﺪ ﻗﺎﻣﺖ اﻟﺼﻼﺓ، ﻗﺪ ﻗﺎﻣﺖ اﻟﺼﻼﺓ، اﻟﻠﻪ ﺃﻛﺒﺮ. اﻟﻠﻪ ﺃﻛﺒﺮ ﻻ ﺇﻟﻪ ﺇﻻ اﻟﻠﻪ»
অর্থাৎ!! তিনি (হযরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন) আমাকে (নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম) ইকামতের বাক্যগুলো শিক্ষা দেন দুই দুই-বার করে এইভাবে-
আল্লাহু আকবার আল্লাহু আকবার, আল্লাহু আকবার আল্লাহু আকবার, আশহাদু আল্লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, আশহাদু আল্লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ, আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ, হাইয়া আলাস্ব স্বালাহ, হাইয়া আলাস্ব স্বালাহ, হাইয়া আলাল ফালাহ, হাইয়া আলাল ফালাহ, ক্বাদ কামাতিস্ব স্বালাহ, ক্বাদ কামাতিস্ব স্বলাহ, আল্লাহু আকবার আল্লাহু আকবার, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ।
{{ সুনানে নাসাঈ হাদিস নং- ,, সুনানে আবু দাউদ হাদিস নং-502,, সুনানে দারেমী 2/763 হাদিস নং-1232 }}
((হাদিসটি সহীহ সনদে বর্ণিত হয়েছে))
ﻭﺣﺪﺛﻨﺎ ﺃﺑﻮ ﺑﻜﺮﺓ، ﻗﺎﻝ: ﺛﻨﺎ ﺃﺑﻮ ﻋﺎﺻﻢ، ﻗﺎﻝ: ﺛﻨﺎ اﺑﻦ ﺟﺮﻳﺞ، ﻗﺎﻝ: ﺃﺧﺒﺮﻧﻲ ﻋﺜﻤﺎﻥ ﺑﻦ اﻟﺴﺎﺋﺐ، ﻋﻦ ﺃﺑﻴﻪ، ﻭﺃﻡ ﻋﺒﺪ اﻟﻤﻠﻚ ﺑﻦ ﺃﺑﻲ ﻣﺤﺬﻭﺭﺓ ﺃﻧﻬﻤﺎ ﺳﻤﻌﺎ ﺃﺑﺎ ﻣﺤﺬﻭﺭﺓ، ﻳﻘﻮﻝ: «ﻋﻠﻤﻨﻲ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ اﻹﻗﺎﻣﺔ ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ , اﻟﻠﻪ ﺃﻛﺒﺮ اﻟﻠﻪ ﺃﻛﺒﺮ ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻻ ﺇﻟﻪ ﺇﻻ اﻟﻠﻪ , ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻻ ﺇﻟﻪ ﺇﻻ اﻟﻠﻪ , ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻣﺤﻤﺪا ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ , ﺃﺷﻬﺪ ﺃﻥ ﻣﺤﻤﺪا ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ , ﺣﻲ ﻋﻠﻰ اﻟﺼﻼﺓ ﺣﻲ ﻋﻠﻰ اﻟﺼﻼﺓ , ﺣﻲ ﻋﻠﻰ اﻟﻔﻼﺡ , ﺣﻲ ﻋﻠﻰ اﻟﻔﻼﺡ , ﻗﺪ ﻗﺎﻣﺖ اﻟﺼﻼﺓ , ﻗﺪ ﻗﺎﻣﺖ اﻟﺼﻼﺓ , اﻟﻠﻪ ﺃﻛﺒﺮ اﻟﻠﻪ ﺃﻛﺒﺮ ﻻ ﺇﻟﻪ ﺇﻻ اﻟﻠﻪ»
অর্থাৎ! হযরত আবু মাহজুরা রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেন, নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাকে ইকামতের বাক্যগুলি দুই দুইবার করে শিক্ষা প্রদান প্রদান করেন যথা-
আল্লাহু আকবার আল্লাহু আকবার, আল্লাহু আকবার আল্লাহু আকবার, আশহাদু আল্লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, আশহাদু আল্লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ, আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ, আশহাদু আন্না মুহাম্মাদার রাসুলুল্লাহ, হাইয়া আলাস্ব স্বালাহ, হাইয়া আলাস্ব স্বালাহ, হাইয়া আলাল ফালাহ, হাইয়া আলাল ফালাহ, ক্বাদ কামাতিস্ব স্বালাহ, ক্বাদ কামাতিস্ব স্বলাহ, আল্লাহু আকবার আল্লাহু আকবার, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ।
{{ শারহে মায়ানিল আসার হাদিস নং-830 }}
✴️ উপরোক্ত হাদিস সমূহ হতে প্রতীয়মান হয় যে, নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হযরত আবু মাহজুরা রাদিয়াল্লাহু আনহু কে ইকামতের বাক্যগুলো দুই দুইবার করে শিখিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে আরো কিছু হাদিস নিম্নে প্রদত্ত হলো-
عَنْ أَبِي مَحْذُورَةَ أَنَّ النَّبِيَّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَلَّمَهُ الأَذَانَ تِسْعَ عَشْرَةَ كَلِمَةً وَالإِقَامَةَ سَبْعَ عَشْرَةَ كَلِمَةً.
অর্থাৎ! হযরত আবু মাহযুরা রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। নাবী সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম নিজে তাকে উনিশ বাক্যে আযান এবং সতের বাক্যে ইকামাত শিক্ষা দিয়েছেন।
{{ সুনানে তিরমিযী হাদিস নং-192 }}
✴️ ইমাম তিরমিজি রহমতুল্লাহি আলাইহি বলেন-
هَذَا حَدِيثٌ حَسَنٌ صَحِيحٌ
অর্থাৎ! উক্ত হাদিসটি হাসান ও সহীহ সনদে বর্ণিত হয়েছে।
ﻋﻦ ﺃﺑﻲ ﻣﺤﺬﻭﺭﺓ، ﻗﺎﻝ: «ﻋﻠﻤﻨﻲ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ اﻷﺫاﻥ ﺗﺴﻊ ﻋﺸﺮﺓ ﻛﻠﻤﺔ، ﻭاﻹﻗﺎﻣﺔ ﺳﺒﻊ ﻋﺸﺮﺓ ﻛﻠﻤﺔ»
অর্থাৎ হযরত আবু মাহজুরা রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত তিনি বলেন আমাকে নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উনিশ বাক্যে আযান এবং সতের বাক্যে ইকামাত শিক্ষা দিয়েছেন।
{{ মুজামে কাবীর তাবরানী খন্ড-7 পৃষ্ঠা-171 হাদিস নং-6730 }}
ﻋﻦ ﺃﺑﻲ ﻣﺤﺬﻭﺭﺓ، ﺃﻥ ﺭﺳﻮﻝ اﻟﻠﻪ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﻗﺎﻝ: «اﻷﺫاﻥ ﺗﺴﻊ ﻋﺸﺮﺓ ﻛﻠﻤﺔ، ﻭاﻹﻗﺎﻣﺔ ﺳﺒﻊ ﻋﺸﺮﺓ ﻛﻠﻤﺔ» ﺛﻢ ﻋﺪﻫﺎ ﺃﺑﻮ ﻣﺤﺬﻭﺭﺓ ﺗﺴﻊ ﻋﺸﺮﺓ ﻛﻠﻤﺔ ﻭﺳﺒﻊ ﻋﺸﺮﺓ
অর্থাৎ! হযরত আবূ মাহযূরা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাকে আযানের উনিশটি এবং ইকামতের সতেরটি বাক্য শিখিয়েছেন। এরপর আবূ মাহযূরা রাদিয়াল্লাহু আনহু ঊনিশটি ও সতেরটি বাক্য গণনা করলেন।
{{ সুনানে নাসাঈ হাদিস নং-637,,
ﻋﻦ ﻋﺒﺪ اﻟﻌﺰﻳﺰ ﺑﻦ ﺭﻓﻴﻊ، ﻗﺎﻝ: ﺳﻤﻌﺖ ﺃﺑﺎ ﻣﺤﺬﻭﺭﺓ، ﻳﺆﺫﻥ ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ , ﻭﻳﻘﻴﻢ ﻣﺜﻨﻰ “
অর্থাৎ! হযরত আবদুল আজিজ বিণ রাফি রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি আবু মাহযূরাহ রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু কে দুই দুইবার বাক্যগুলি প্রয়োগ করে আজান ও ইকামত দিতে শুনেছি।
{{ শারহে মায়ানিল আসার হাদিস নং-838 }}
✴️ উপরোক্ত হাদিস সমূহ থেকে প্রমাণ হয় যে, নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইকামতের মোট বাক্য সংখ্যা সতেরটি উল্লেখ করেছেন অথবা হযরত আবু মাহজুরা রাদিয়াল্লাহু আনহুকে ইকামতের মোট সতেরটি বাক্য শিখিয়েছেন। আর একথা প্রমাণিত যে, ইকামতের বাক্য সংখ্যা সতেরটি তখনই প্রমাণিত হবে যখন ইকামত দুই দুইবার করে পাঠ করা হবে।
✴️ এছাড়া আরো বহু হাদিস থেকে ইকামতের বাক্যগুলো দুই দুই বার করে পাঠ করার প্রমাণ পাওয়া যায়। তন্মধ্যে কিছু নিম্নে তুলে ধরা হলো-
ﻋﻦ ﺣﻤﺎﺩ، ﻋﻦ ﺇﺑﺮاﻫﻴﻢ، ﻗﺎﻝ: «ﻛﺎﻥ ﺛﻮﺑﺎﻥ ﻳﺆﺫﻥ ﻣﺜﻨﻰ , ﻭﻳﻘﻴﻢ ﻣﺜﻨﻰ»
অর্থাৎ! হযরত ইবরাহীম নাখয়ী রাযিআল্লাহু তা’আলা আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, হযরত সাওবান রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু আজান ও ইকামতের বাক্যগুলো দুই দুই বার করে পাঠ করতেন।
{{ শারহে মায়ানিল আসার হাদিস নং-837 }}
ﻋﻦ ﻋﺒﻴﺪ، ﻣﻮﻟﻰ ﺳﻠﻤﺔ ﺑﻦ اﻷﻛﻮﻉ «ﺃﻥ ﺳﻠﻤﺔ ﺑﻦ اﻷﻛﻮﻉ، ﻛﺎﻥ ﻳﺜﻨﻲ اﻹﻗﺎﻣﺔ»
অর্থাৎ! হযরত ওবাইথ রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু হতে বর্ণিত। নিশ্চয়ই সালমা রাদিয়াল্লাহু আনহু দুই দুই বার করে একামতের বাক্যগুলি পাঠ করতেন।
{{ শারহে মায়ানিল আসার হাদিস নং-836 }
ﻣﺤﻤﺪ، ﻗﺎﻝ: ﺃﺧﺒﺮﻧﺎ ﺃﺑﻮ ﺣﻨﻴﻔﺔ، ﻋﻦ ﺣﻤﺎﺩ، ﻋﻦ ﺇﺑﺮاﻫﻴﻢ، ﻗﺎﻝ: «اﻷﺫاﻥ ﻭاﻹﻗﺎﻣﺔ ﻣﺜﻨﻰ ﻣﺜﻨﻰ» ﻗﺎﻝ ﻣﺤﻤﺪ: ﻭﺑﻪ ﻧﺄﺧﺬ، ﻭﻫﻮ ﻗﻮﻝ ﺃﺑﻲ ﺣﻨﻴﻔﺔ ﺭﺿﻲ اﻟﻠﻪ ﻋﻨﻪ
অর্থাৎ! বিখ্যাত তাবেয়ী হযরত ইবরাহীম নাখায়ী রহমতুল্লাহি আলাইহি এরশাদ করেন, আজান ও ইকামতের বাক্যগুলো দুই দুই বার পাঠ করতে হবে। ইমাম মুহাম্মদ রহমতুল্লাহি আলাইহি বলেন, এই মন্তব্যটি আমরা গ্রহণ করেছি এবং এটাই হলো ইমাম আবু হানিফা রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহুর মত।
{{ আল-আসার লি-মুহাম্মাদ খন্ড-1 পৃষ্ঠা-105 হাদিস নং-62 }}
✴️ প্রিয় পাঠকবৃন্দ উপরোক্ত আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে আপনারা অবশ্যই অবগত হয়েছেন যে, সহীহ সুন্নাহর আলোকে ইকামতের বাক্যগুলো বলে দুই দুই বার পাঠ করাটাই সঠিক ও সুন্নত।
🤲 আল্লাহ তা’আলা আমাদের সঠিক পদ্ধতি অনুযায়ী ইকামতের বাক্যগুলো পাঠ করার তৌফিক দান করুন! আমীন!
وما توفيقي الا بالله العلي العظيم و الصلاة والسلام على حبيبه الكريم صلى الله عليه وسلم
✍️
⁦✍️⁩⁦মুফতী আমজাদ হোসাইন সিমনানী প্রেসিডেন্ট সুন্নি মিশন✍️⁩ পরিচালক:- সিমনানী রিসার্চ সেন্টার✍️
🌍 থানা- কুশমন্ডি, জেলা- দক্ষিন দিনাজপুর, রাজ্য- পশ্চিমবঙ্গ, ভারত🌍
নোট:- কোন মসআলা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হলে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন আমাদের
SIMNANI RESEARCH CENTRE & HOLY-WAY TEAM

সমাজের পাশে দ্বীনের খেদমতের জন্য সব সময় আছে।*আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য-এই লিংকে ক্লিক করুন www.keyofislam.com

আমাদের Real Sunni TvHoly way ইউটিউব চ্যানেল গুলি কে  SUBSCRIBE করুন

আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

Leave a Reply

This Post Has 3 Comments

  1. Kaneez

    Jazaakallah khaira for uploading this post

  2. Abdullah

    Jazaakallah khaira for uploading this post