ওলিমায় নতুন বধু দেখানোর প্রথা আদৌ কি শরীয়ত সম্মত?

ওলিমায় নতুন বধু দেখানোর প্রথা আদৌ কি শরীয়ত সম্মত?

ওলিমায় নতুন বধু দেখানোর প্রথা আদৌ কি শরীয়ত সম্মত?

💫بسم الله الرحمن الرحيم💫
💎نحمده تبارك و تعالي و نصلي ونسلم على رسوله الاعلى أما بعد-💎
✴️সম্মানিত পাঠকবৃন্দ! পূর্বের আলোচনা থেকে আপনারা অবশ্যই অবগত হয়েছেন যে, ওলিমা করা সুন্নত এবং ওলিমায় অংশগ্রহণ করাও সুন্নতের অন্তর্ভুক্ত। তাই আমরা বিয়ের সময় ওলিমার আয়োজন করতে পছন্দ করি এবং ওলিমায় অংশগ্রহণ করতে ভালোবাসি। তবে আমাদের দেশে ওলিমার সময় একটি প্রথা চালু আছে, প্রথা টি হলো- ওলিমার সময় নতুন বধু কে সুসজ্জিত করে কোন এক জায়গায় বসিয়ে দেওয়া এবং ওলিমায় অংশগ্রহণকারী ব্যক্তিদের সেই নতুন বধুকে প্রদর্শন করা বা প্রদর্শন করানো হয়ে থাকে। একজন মুসলিম হওয়া অনুযায়ী এ বিষয়টি জানা আমাদের খুব প্রয়োজন। এমন একটি প্রথা যেখানে নতুন বধুকে খুব সুন্দরভাবে সাজিয়ে ও সজ্জিত করে আসরে বসিয়ে দেওয়া হয় এবং ওলিমা অংশগ্রহণকারীর ব্যক্তিরা নতুন বধুকে প্রদর্শন করে এটা কি আদৌ শরীয়তে বৈধ? কোরআন ও হাদিসের আলোকে যদি এই বিষয়টি পর্যালোচনা করা যায় তাহলে সুস্পষ্ট প্রতীয়মান হয় যে, উক্ত প্রথাটি বৈধ নয়। কারণ, এই প্রথায় একজন ব্যক্তি এমন একজন মেয়ের দিকে দৃষ্টিপাত করছে যার দিকে ইচ্ছাকৃত তাকানো ও দেখা তার জন্য জায়েজ নয়। নবী করীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের হাদিস অনুযায়ী নিজের স্ত্রী ও বংশের নির্দিষ্ট কিছু মহিলা ছাড়া অন্য কোন মহিলার প্রতি ইচ্ছাকৃত দৃষ্টিপাত করাটা হলো গুনাহ, অনিচ্ছাকৃত যদি বৃষ্টিপাত হয় তাহলে সেটা মাফ করে দেওয়া হবে। তবে ওলিমা অনুষ্ঠানে নতুন বধুর দিকে দৃষ্টিপাত অনিচ্ছাকৃত হয় না বরং ইচ্ছাকৃত হয়ে থাকে। এবং ইচ্ছাকৃত মানুষকে দেখানোর জন্যই নতুন বধু কে কোন সময় বিউটি পার্লার নচেৎ বাড়িতে অতি সুন্দর ও সজ্জিত করে সাজিয়ে আসরে বসিয়ে দেওয়া হয়। এই প্রসঙ্গে নবী কারীম সাল্লাল্লাহু তায়ালা আলাইহি ওয়া সাল্লামের কয়েকটি হাদীস নিম্নে প্রদত্ত হলো –
عَنْ جَرِيرٍ، قَالَ: سَأَلْتُ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ عَنْ نَظْرَةِ الْفَجْأَةِ؟ فَقَالَ: اصْرِفْ بَصَرَكَ (صحيح)
অর্থাৎ! জারীর রাদিয়াল্লাহু আনহু সূত্রে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে হঠাৎ কোনো নারীর প্রতি দৃষ্টি পড়া সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেনঃ তোমার চোখ ফিরিয়ে নিবে।
{{ সুনানে আবু দাউদ হাদিস নং-2148 }}
{{ মুসনাদে আহমদ হাদিস নং-19197 }}
{{সুনানে দারেমী হাদিস নং-2685 }}
{{ মুজামে ইবনুল আরাবী হাদিস নং-2104 }}
{{ মুজামে কাবীর তাবরানী হাদিস নং-2407 }}
((হাদীসটি সহীহ সনদে বর্ণিত হয়েছে))
عَنِ ابْنِ بُرَيْدَةَ، عَنْ أَبِيهِ، قَالَ: قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ لِعَلِيٍّ: يَا عَلِيُّ لَا تُتْبِعِ النَّظْرَةَ النَّظْرَةَ، فَإِنَّ لَكَ الْأُولَى وَلَيْسَتْ لَكَ الْآخِرَةُ (حسن)
অর্থাৎ! ইবনু বুরাইদাহ রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে তার পিতার সূত্রে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আলী রাদিয়াল্লাহু আনহু কে বললেনঃ হে আলী! কোনো নারীকে একবার (অনিচ্ছাকৃত) দেখার পর দ্বিতীয়বার (ইচ্ছাকৃত) দেখবে না। কেননা তোমার জন্য প্রথমবার দেখার অনুমতি আছে, কিন্তু দ্বিতীয়বার জায়িয নয়।
{{ সুনানে আবু দাউদ হাদিস নং-2149 }}
{{ মুসান্নাফে ইবনে আবী শাইবা হাদিস-17218 }}
{{ মুসনাদ আহমাদ হাদিস নং-1369 }}
{{ সুনানে দারেমী হাদিস নং-2751 }}
{{ সুনানে তিরমিজি হাদিস নং-2777 }}
((হাদীসটি বিশুদ্ধ সনদে বর্ণিত হয়েছে))
✴️নবী কারীম সাল্লাল্লাহু তায়ালা আলাইহি ওয়াসাল্লাম অন্যত্র আরো ইরশাদ করেন-
، فَزِنَا الْعَيْنَيْنِ النَّظَرُ،
অর্থাৎ! গায়রে মাহরাম নারীর প্রতি দৃষ্টিপাত করা হচ্ছে চোখের যিনা।
{{ সহীহ মুসলিম হাদীস নং-«6924 }}
{{ সুনানে আবু দাউদ হাদিস নং-2152 }}
{{মুসনাদে আহমদ হাদিস নং-10920 }}
{{ মুজামে ইবনুল আরাবী হাদিস নং-2342 }}
{{ সুনানে কুবরা বাইহাকী হাদিস-13509 }}
((হাদীসটি সহীহ সূত্রে বর্ণিত হয়েছে))
✴️সুতরাং উপরোক্ত প্রথাটি আমাদেরকে পরিত্যাগ করতে হবে।‌ ওলিমা করার জন্য নতুন বধুকে আসরে বসিয়ে দেওয়া জরুরি নয় বরং এটা জরুরি মনে করা গুনাহের অন্তর্ভুক্ত।
🤲 আল্লাহ তা’আলা আমাদের সমস্ত মুসলিম ভাই-বোনদের উপরোক্ত বিষয়টি বুঝার শক্তি প্রদান করুন!! এবং আমাদেরকে উক্ত প্রথাটি পরিত্যাগ করার তৌফিক দান করুন!! আমীন! বি-জাহে সাইয়েদিল মুরসালীন আলাইহিস্ব স্বালাত ওয়াত তাসলীম।
💫وما توفيقي الا بالله العلي العظيم و الصلاة والسلام على حبيبه الكريم صلى الله عليه وسلم💫
✍️মুফতী আমজাদ হুসাইন সিমনানী, পরিচালক:- সিমনানী রিসার্চ সেন্টার✍️
🌍থানা- কুশমন্ডি, জেলা-দক্ষিন দিনাজপুর, রাজ্য-পশ্চিমবঙ্গ, ভারত 🌍
নোট:- কোন মসআলা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হলে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন আমাদের
SIMNANI RESEARCH CENTRE & HOLY-WAY TEAM

সমাজের পাশে দ্বীনের খেদমতের জন্য সব সময় আছে।*আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য-এই লিংকে ক্লিক করুন www.keyofislam.com

আমাদের Real Sunni TvHoly way ইউটিউব চ্যানেল গুলি কে  SUBSCRIBE করুন

আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

Leave a Reply

This Post Has 16 Comments

  1. Abdullah

    Jazaakallah khaira for uploading this post

  2. Humayun k

    Very important topic 👍

  3. Kaneez

    Ai rokom post beshi beshi dewa uchit manush ta pore shikkha orjon korte pare

  4. Moni

    Jazaakallah khaira bro

  5. Anonymous

    Khub sundor ekti bisoi pore khub valo laglo

  6. Sabir Ahammed

    Nice

  7. Anonymous

    এ সব ব্যাপারে যুব সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে এবং সমাজকে সচেতন করার দায়িত্ব তাদেরকে নিতে হবে I কারণ এসব ব্যাপারে কথা বলতে গেলে প্রাচীন পন্থী লোকজন শুনতে চায়না I আমার নিজের অভিজ্ঞতা আছে I যার বিয়ে সেই ছেলেটিকেই দায়িত্ব নিয়ে এসব জঘন্য প্রথা বন্ধ করতে হবে ! তাছাড়া মনে হয় এ প্রথা ওঠানো সম্ভব হবে না I

  8. Noor Alam qadri

    Theek bolechen

  9. Noor Alam qadri

    Good post

  10. Tajemul

    Nice

  11. Tajemul

    Jazaakallaahu khaira

  12. Tajemul

    Good

  13. Mufti tamjit

    Nice post thanks for your help

  14. Mufti tamjit

    Nice one

  15. M moshtak

    Ekdom thik kotha bolechen