কবরের উপর জল ছিটানো জায়েজ কিনা?

কবরের উপর জল ছিটানো জায়েজ কিনা?

কবরের উপর জল ছিটানো জায়েজ কিনা?

প্রশ্ন:-কবরের উপর জল ছিটানো জায়েজ কিনা??
✳️بسم الله الرحمن الرحيم✳️
نحمده تبارك و تعالي و نصلي ونسلم على حبيبه الاعلى أما بعد-
✴️মৃত ব্যক্তিকে দাফন করার পর তার কবরের উপর জল ছিটানো সুন্নত। কারণ বহু হাদিস থেকে প্রমাণিত যে, নবী করীম সাল্লাল্লাহু সালামের কবর মোবারক এর উপর জল ছিটানো হয়েছে, তাছাড়া তিনি নিজেই সাহাবায়ে কেরামের কবরে জল ছিটিয়েছেন। সুতরাং কবরের উপর জল ছিটানো সুন্নতের অন্তর্ভুক্ত হবে। ফাক্বিহগণ বলেন, মাটি জমাট করার উদ্দেশ্যে এবং কবরের হেফাজতের নিয়তে পানি ছিটানো মুস্তাহাব রয়েছে। পানি ছিটানোর সময় মাথার দিক থেকে শুরু করে পায়ের দিকে যাবে। আর যদি জমজম কুয়ার পানি বরকত অর্জনের উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হয় তাহলে সেটাও জায়েজ এবং বৈধ রয়েছে। তেমনি পরক্ষণে কবরের মাটি সরে গেলে তা ঠিক করে তার উপর পানি ছিটিয়ে মজবুত করে দেওয়াও জায়েজ ও বৈধ।
যেমন হাদিস শরীফের মধ্যে রয়েছে,
ﻋﻦ ﺟﻌﻔﺮ ﺑﻦ ﻣﺤﻤﺪ، ﻋﻦ ﺃﺑﻴﻪ، ﺃﻥ اﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ: «ﺣﺜﺎ ﻋﻠﻰ اﻟﻤﻴﺖ ﺛﻼﺙ ﺣﺜﻴﺎﺕ ﺑﻴﺪﻳﻪ ﺟﻤﻴﻌﺎ»
ﻭﺑﻬﺬا اﻹﺳﻨﺎﺩ، «ﺃﻥ اﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﺭﺵ ﻋﻠﻰ ﻗﺒﺮ اﺑﻨﻪ ﺇﺑﺮاﻫﻴﻢ، ﻭﻭﺿﻊ ﻋﻠﻴﻪ ﺣﺼﺒﺎء».
অর্থাৎ! হযরত জাফর বিন মুহাম্মদ রাদিয়াল্লাহু আনহু নিজ পিতার সূত্রে বর্ণনা করেন, নবী কারীম সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলাইহি ওয়াসাল্লাম মৃত ব্যক্তির (কবরের) উপর দুই হাত ভরে তিন অঞ্জলি মাটি দিতেন। সেই সনদে রয়েছে, নবী কারীম সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলাইহি ওয়াসাল্লাম নিজ পুত্র হযরত ইব্রাহিম রাদিয়াল্লাহু আনহুর কবরের উপর জল ছিটিয়ে ছিলেন। এবং সেখান কিছু পাথর রেখেছিলেন।
{{ শারহুস সুন্নাহ বাগবী খন্ড-5 পৃষ্ঠা-401 হাদিস নং-1515 }}
عن جابر قال رشَّ قبر النّبی صلی الله تعالی علیه وسلم وکان الذّی رشّ المآء علٰی قبرهٖ بلال بن رباح بقربة بداء من قبل راسه حتّٰی انتهٰی الٰی رِجلیهٖ
অর্থাৎ! হযরত জাবের রাদিয়াল্লাহু তা’আলা আনহু হতে বর্ণিত। রাসূলে কারীম সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলাইহি সাল্লাম এর কবর মোবারক এর উপর জল ছিটানো হয়েছিল। এবং সেই কাজটি হযরত বেলাল বিন রাবাহ মাস্কিজা দ্বারা করেছিলেন এবং তিনি মাথার দিক থেকে শুরু করে কদম মোবারকের দিক পর্যন্ত জল ছিটিয়ে ছিলেন।
{{ শারহুস সুন্নাহ বাগবী খন্ড-5 পৃষ্ঠা-401 }}
{{ মিশকাতুল মাসাবিঃ পৃষ্ঠা নং 148 }}
ﻋﻦ ﺟﻌﻔﺮ ﺑﻦ ﻣﺤﻤﺪ، ﻋﻦ ﺃﺑﻴﻪ: ” ﺃﻥ اﻟﻨﺒﻲ ﺻﻠﻰ اﻟﻠﻪ ﻋﻠﻴﻪ ﻭﺳﻠﻢ ﺭﺵ ﻋﻠﻰ ﻗﺒﺮ ﺇﺑﺮاﻫﻴﻢ وفى رواية عن عايشة
অর্থাৎ! হযরত জাফর বিন মুহাম্মাদ রাদিয়াল্লাহু আনহু তার পিতার সূত্রে বর্ণনা করেন। নিশ্চয়ই নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হযরত ইব্রাহিম রাদিয়াল্লাহু আনহুর কবরে জল ছিটিয়ে ছিলেন। হযরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা হতেও হাদিসটি বর্ণিত হয়েছে।
{{ সুনানে কুবরা বাইহাকী হাদিস নং-6740,, কিতাবুল উম্ম লি-শাফেয়ী খন্ড-1 পৃষ্ঠা-3111,, মারেফাতুস সুনান হাদিস নং-7722,, মিশকাতুল মাসাবিঃ হাদীস নং-1708,, মাজমাউজ জাওয়ায়েদ হাদিস নং-4250,, মুজামে আওসাত হাদিস নং-6146 }}
عَنْ أَبِي رَافِعٍ قَالَ سَلَّ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ سَعْدًا وَرَشَّ عَلَى قَبْرِهِ مَاءً.
অর্থাৎ! আবূ রাফি‘ রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম (খাটিয়া থেকে) সা‘দ (রাদিয়াল্লাহু আনহু)-এর লাশ পাযের দিক থেকে কবরে নামান এবং তার কবরে পানি ছিটিয়ে দেন।
{{ সুনানে ইবনে মাজাহ হাদিস নং-1618,, মিশকাতুল মাসাবিঃ পৃষ্ঠা নং 366 }}
ﻗﺎﻝ ﺇﺳﺤﺎﻕ: ﻻ ﺑﻞ اﻟﺴﻨﺔ ﺃﻥ ﻳﺭﺵ اﻝﻗﺒﺮ
অর্থাৎ! ইমাম ইসাহাক রাহমাতুল্লাহ আলাইহি বলেন, কবরের উপর জল ছিটানো সুন্নত।
{{ মাসাঈলে আহমদ ও ইসহাক খন্ড-3 পৃষ্ঠা-1402 }}
✴️ফিক্বহ শাস্ত্রের বিখ্যাত গ্রন্থ ‘ হাশিয়া তাহতাবী’ এর মধ্যে রয়েছে-
قوله : ” ولا بأس برش الماء ” بل ينبغي أن يكون مندوباً لأن النبي صلى الله عليه وسلم فعله بقبر عيد وقبر ولده إبراهيم وأمر به في قبر عثمان بن مظعون “
অর্থাৎ! কবরের উপর জল ছিটানোর মধ্যে কোন সমস্যা নেই বরং তা মুস্তাহাব বলে বিবেচিত হবে। কারণ নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নিজ গোলাম ও পুত্রের কবরে সেই কাজটি সম্পন্ন করেছেন। এবং তিনি উসমান বিন মায’উন রাদিয়াল্লাহু আনহুর কবরে জল ছেঁটানোর হুকুম দিয়েছিলেন।
{{ হাশিয়াতুত তাহতাবী আলা মারাকিল ফালাহ পৃষ্ঠা নং-611 }}
✴️ভারত উপমহাদেশের বিখ্যাত ফিক্বহ শাস্ত্রবিদ হযরত সদরুশ শারীয়াহ রাহমাতুল্লাহি আলাইহি এরশাদ করেন-
” اس( قبر) پر پانی چھڑکنے میں حرج نہیں بلکہ بہتر ہے “
অর্থাৎ কবরের উপর পানি ছিটানোর মধ্যে কোন সমস্যা নেই বরং তা উত্তম কর্ম বলে বিবেচিত হবে।
{{ বাহারে শরীয়ত প্রথম খন্ড পৃষ্ঠা নং-846 }}
💫وما توفيقي الا بالله العلي العظيم و الصلاة والسلام على حبيبه الكريم صلى الله عليه وسلم💫
⁦✍️⁩⁦মুফতী আমজাদ হোসাইন সিমনানী প্রেসিডেন্ট সুন্নি মিশন✍️⁩ পরিচালক:- সিমনানী রিসার্চ সেন্টার✍️
🌍 থানা- কুশমন্ডি, জেলা- দক্ষিন দিনাজপুর, রাজ্য- পশ্চিমবঙ্গ, ভারত🌍
নোট:- কোন মসআলা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হলে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন আমাদের
SIMNANI RESEARCH CENTRE & HOLY-WAY TEAM

সমাজের পাশে দ্বীনের খেদমতের জন্য সব সময় আছে।*আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য-এই লিংকে ক্লিক করুন www.keyofislam.com

আমাদের Real Sunni TvHoly way ইউটিউব চ্যানেল গুলি কে  SUBSCRIBE করুন

আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

Leave a Reply

This Post Has 2 Comments

  1. Abdullah

    Jazaakallah khaira

  2. Amjad husain simnani

    Thanks for uploading this post