দুগ্ধ সম্পর্ক সেই সব লোকদের হারাম করে দেয়, যাদের জন্মগত সম্পর্ক হারাম করে।

দুগ্ধ সম্পর্ক সেই সব লোকদের হারাম করে দেয়, যাদের জন্মগত সম্পর্ক হারাম করে।

দুগ্ধ সম্পর্ক সেই সব লোকদের হারাম করে দেয়, যাদের জন্মগত সম্পর্ক হারাম করে।

,. 💐بسم الله الرحمن الرحيم💐
نحمده و نصلى على حبيبه الكريم
⁦🖋️⁩সম্মানিত মুসলিম সমাজ! ইসলাম শরীয়তে বিবাহের সম্পর্ক স্থাপনের ক্ষেত্রে যে সকল লোক বংশগত সূত্রে হারাম সে সকল লোক দুধপানের কারণেও হারাম। অর্থাৎ দুগ্ধ সম্পর্ক সে সব লোকদের সঙ্গে বিবাহ কে হারাম করে দেয়, যাদের জন্মগত সম্পর্ক হারাম করে। সুতরাং বিয়ের আগে আপনাকে ভালোভাবে দেখতে হবে যে, যার সঙ্গে আপনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে চলেছেন সেই নারী অথবা পুরুষের আপনার সঙ্গে দূগ্ধ সম্পর্ক আছে কি নাই? যদি থাকে, তাহলে সেই বিয়ে থেকে বিরত থাকুন। কারণ এ বিয়ে কখনোই জায়েজ ও হালাল হবে না। উক্ত প্রসঙ্গে নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর কিছু বাণী নিম্নে প্রদত্ত হলো।
عَنْ عَائِشَةَ، قَالَتْ قَالَ لِي رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم ‏ “‏ يَحْرُمُ مِنَ الرَّضَاعَةِ مَا يَحْرُمُ مِنَ الْوِلاَدَةِ ‏”‏ ‏
অর্থাৎ! আয়িশাহ্ রাদিয়াল্লাহু আনহা বলেন, রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ “দুগ্ধ সম্পর্ক সে সব লোকদের হারাম করে দেয়, যাদের জন্মগত সম্পর্ক হারাম করে।
{{ সহীহ মুসলিম হাদিস নং-3642 }}
{{ সুনানে দারেমী হাদিস নং-২২৮৮.}}
عَنْ عَلِيِّ بْنِ أَبِي طَالِبٍ، قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم ‏ “‏ إِنَّ اللَّهَ حَرَّمَ مِنَ الرَّضَاعِ مَا حَرَّمَ مِنَ النَّسَبِ ‏”‏ ‏ قَالَ أَبُو عِيسَى حَدِيثُ عَلِيٍّ حَسَنٌ صَحِيحٌ ‏.‏
অর্থাৎ! আলী রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যে সকল লোককে আল্লাহ তা’আলা বংশগত সম্পর্কের কারণে (বিয়ের সম্পর্ক স্থাপনের ক্ষেত্রে) হারাম করেছেন, একইভাবে সে সকল লোককে দুধপানের কারণেও (বিয়ের সম্পর্ক স্থাপনের ক্ষেত্রে) হারাম করেছেন।
আলী রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত হাদীসটি হাসান ও সহীহ সূত্রে বর্ণিত।
{{ সুনানে তিরমিযী হাদিস নং-1178 }}
عَنْ عَائِشَةَ، قَالَتْ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم ‏ “‏ إِنَّ اللَّهَ حَرَّمَ مِنَ الرَّضَاعَةِ مَا حَرَّمَ مِنَ الْوِلاَدَةِ ‏”‏ ‏.‏ قَالَ أَبُو عِيسَى هَذَا حَدِيثٌ حَسَنٌ صَحِيحٌ ‏.‏
অর্থাৎ! আইশা রাদিয়াল্লাহু আনহা হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যে সকল লোককে আল্লাহ তা’আলা জন্মসূত্রে (বিয়ের সম্পর্ক স্থাপনের ক্ষেত্রে) হারাম করেছেন, সে সকল লোককে দুধপানের কারণেও হারাম করেছেন।
এ হাদীসটিকে আবু ঈসা হাসান সহীহ বলেছেন।
{{ সুনানে তিরমিযী হাদিস নং-1179 }}
উপরোক্ত হাদিসের পরিপ্রেক্ষিতে ইমাম তিরমিজি রহমতুল্লাহি আলাইহি ইরশাদ করেন-
وَالْعَمَلُ عَلَى هَذَا عِنْدَ أَهْلِ الْعِلْمِ مِنْ أَصْحَابِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم وَغَيْرِهِمْ لاَ نَعْلَمُ بَيْنَهُمْ فِي ذَلِكَ اخْتِلاَفًا
অর্থাৎ! এ হাদীস অনুযায়ী নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের বিশেষজ্ঞ সাহাবা ও অন্যান্য বিদ্বানগণ আমল করেছেন। এ বিষয়ে তাদের মাঝে কোন মতভেদ আছে বলে আমাদের জানা নেই।
{{ সুনানে তিরমিযী শরীফ }}
এছাড়া আরোও বহু হাদিস পাওয়া যায়, যেখান থেকে প্রতীয়মান হয় যে, জন্ম সম্পর্ক যেসব নারী ও পুরুষ কে বিবাহের ক্ষেত্রে হারাম করে, দুধ পানের সম্পর্কো সেই সব নারী ও পুরুষ কে হারাম করে দেয়। যেমন-
عَنْ عَائِشَةَ عَنْ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ مَا حَرَّمَتْهُ الْوِلَادَةُ حَرَّمَهُ الرَّضَاعُ
অর্থাৎ! আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা সূত্রে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে বর্ণিত। তিনি বলেছেনঃ জন্ম সম্পর্ক যাকে হারাম করে, দুধ পানের সম্পর্কও তাকে হারাম করে।
{{ সুনানে নাসাঈ হাদিস নং-3313 }}
عَنْ عَائِشَةَ أَنَّهَا أَخْبَرَتْهُ أَنَّ عَمَّهَا مِنْ الرَّضَاعَةِ يُسَمَّى أَفْلَحَ اسْتَأْذَنَ عَلَيْهَا فَحَجَبَتْهُ فَأُخْبِرَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فَقَالَ لَا تَحْتَجِبِي مِنْهُ فَإِنَّهُ يَحْرُمُ مِنْ الرَّضَاعِ مَا يَحْرُمُ مِنْ النَّسَبِ
অর্থাৎ! আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা থেকে বর্ণিত। তিনি তাকে সংবাদ দিয়েছেন যে, তার রিযায়ী ফুফা আফলাহ তার নিকট আসতে অনুমতি চাইলে তিনি তা হতে পর্দা করলেন। রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-কে এ সংবাদ দিলে তিনি বলেন তার থেকে পর্দা করো না। কেননা, দুধ পান সম্পর্কে ঐ সকল লোক হারাম হয়, বংশগত সম্পর্কে যারা হারাম হয়।
{{ সুনানে নাসাঈ হাদিস নং-3314 }}
عَنْ عَائِشَةَ عَنْ النَّبِيِّ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ قَالَ يَحْرُمُ مِنْ الرَّضَاعِ مَا يَحْرُمُ مِنْ النَّسَبِ
অর্থাৎ! আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা সূত্রে রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম থেকে বর্ণিত। তিনি বলেছেনঃ বংশগত সূত্রে যারা হারাম, তারা দুধ পানের সম্পর্কেও হারাম।
{{ সুনানে নাসাঈ হাদিস নং-3315 }}
عَنْ عَلِيٍّ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُ قَالَ قُلْتُ يَا رَسُولَ اللَّهِ مَا لَكَ تَنَوَّقُ فِي قُرَيْشٍ وَتَدَعُنَا قَالَ وَعِنْدَكَ أَحَدٌ قُلْتُ نَعَمْ بِنْتُ حَمْزَةَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ إِنَّهَا لَا تَحِلُّ لِي إِنَّهَا ابْنَةُ أَخِي مِنْ الرَّضَاعَةِ
অর্থাৎ! আলী রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমি বললামঃ ইয়া রাসূলাল্লাহ্! আপনার কি হলো যে, আপনি কুরাইশদের মধ্যেই (বিবাহ করার) আগ্রহ করেন, আর আমাদেরকে (অর্থাৎ বনী হাশিমকে) পরিত্যাগ করেন। তিনি বললেনঃ তোমার নিকট কি কেউ আছে? আমি বললামঃ হ্যাঁ, হামযার কন্যা। রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেনঃ সে আমার জন্য হালাল হবে না। কেননা, সে তো আমার দুধ ভাই-এর কন্যা।
{{ সুনানে নাসাঈ হাদিস নং-3317 }}
عَنْ ابْنِ عَبَّاسٍ قَالَ ذُكِرَ لِرَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ بِنْتُ حَمْزَةَ فَقَالَ إِنَّهَا ابْنَةُ أَخِي مِنْ الرَّضَاعَةِ
অর্থাৎ! ইবন আব্বাস রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত । তিনি বলেন, হামযার কন্যাকে বিবাহ করা সম্বন্ধে রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ সেতো আমার দুধ ভাইয়ের কন্যা।
{{ সুনানে নাসাঈ হাদিস নং-3318 }}
💞প্রিয় পাঠক-পাঠিকা! আমাদের সমাজে বহু মানুষ হয়তো জানেনা যে, বিবাহ সম্পর্ক স্থাপনের ক্ষেত্রে বংশ সূত্রে যে সমস্ত পুরুষ ও মহিলা কে বিবাহ করা হারাম তেমনি দুধ পান সম্পর্কেও সেসব মহিলা ও পুরুষকে বিবাহ করা শরীয়তে হারাম ও নিষিদ্ধ। কিন্তু অজ্ঞতা ও অবহেলার কারণে বহু জায়গায় দুধ পানের সম্পর্ক থাকা সত্ত্বেও দুই ছেলে-মেয়েকে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ করে দেওয়া হয়। তাই এই বিষয়ে সমস্ত ব্যক্তিদের সতর্ক থাকা উচিত। জানা সত্ত্বেও এ ধরনের বিবাহ সম্পন্ন করলে অতিসত্বর তাদের অভয় কে পৃথক ও আলাদা করে দেওয়া ও বিবাহকে বাতিল বলে ঘোষণা করা জরুরি। নচেৎ যে সমস্ত ব্যক্তিরা জানা সত্ত্বেও এ কাজ করেছে সমস্ত গুনাহের দায়ী তাকে নিতে হবে। এবং সেই ছেলে ও মেয়েও গুনাহ থেকে বঞ্চিত থাকবে না।
আল্লাহ তায়ালা সমস্ত মুসলিম ভাই ও বোনদের ইসলাম শরীয়ত মোতাবেক জীবন যাপন করার শক্তি প্রদান করুন! ইসলামকে সঠিকভাবে জানার ও আমল করার তৌফিক দান করুন! আমিন! বি-জাহি সাইয়েদিল মুরসালীন আলাইহিস্ব স্বালাত ওয়া তালীম।।
✍️ মুফতী আমজাদ হুসাইন সিমনানী🖋️
🌍 কুশমন্ডি, দক্ষিণ দিনাজপুর, পশ্চিমবঙ্গ
🌍
নোট:- কোন মসআলা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হলে আমাদেরকেকমেন্ট করে জানাতে পারেন আমাদের
SIMNANI RESEARCH CENTRE & HOLY-WAY TEAM

সমাজের পাশে দ্বীনের খেদমতের জন্য সব সময় আছে।*আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য-এই লিংকে ক্লিক করুন*👇👇👇👇👇👇👇👇👇

www.keyofislam.com
আমাদের Real Sunni TvHoly way ইউটিউব চ্যানেল গুলি কে  SUBSCRIBE করুন

আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

Leave a Reply

This Post Has 5 Comments

  1. Kaneez

    Jazaakallah khaira for uploading this post

  2. Amjad husain simnani

    Thanks for uploading my article in this valuable website.

  3. Abdullah

    Apnar post gulo khub valo laglo aro beshi beshi post o article charben.

  4. Sabir ahammed

    Nice post

  5. Anonymous

    Khub vlo laglo