বিয়ের দিন কন্যাকে কিভাবে সাজিয়ে বরের বাড়ি নিয়ে আসবেন?

বিয়ের দিন কন্যাকে কিভাবে সাজিয়ে বরের বাড়ি নিয়ে আসবেন?

বিয়ের দিন কন্যাকে কিভাবে সাজিয়ে বরের বাড়ি নিয়ে আসবেন?

         💫بسم الله الرحمن الرحيم💫
💞نحمده تبارك و تعالي و نصلي ونسلم على حبيبه الاعلى أما بعد-💞
✴️ সম্মানিত পাঠকবৃন্দ! আমাদের দেশের রীতি রেওয়াজ অনুযায়ী আমরা যখন নতুন বধু কে তার বাড়ি থেকে ছেলের বাড়ি নিয়ে আসি বরযাত্রীর মাধ্যমে, তখন সেই কন্যাকে নানান ভাবে সাজানো হয়ে থাকে। বিশেষ করে লাল বেনারসি শাড়ি ও পাতলা চিকচিকে লাল ওড়না দিয়ে সুসজ্জিত করে নিয়ে আসাটা প্রায় বিয়ে বাড়িতে দেখা যায়। তাছাড়া বহু সিটিকল গয়না দ্বারা তাকে সজ্জিত করা হয়। প্রশ্ন হলো- উপরোক্ত কাপড় ও গয়না দিয়ে সজ্জিত করে নতুন বউকে বাড়িতে নিয়ে আসার প্রথাটি আদৌ কি বৈধ? এটা কি শরীয়ত সম্মত? এটা কি জায়েজ? এ বিষয়ে আমি বলব, প্রচলিত প্রথা ও সাজগোজ করার রীতি রেওয়াজ শরীয়ত সম্মত ও বৈধ নয়। কারণ নারীর পর্দা হলো- মাথার চুল থেকে পা পর্যন্ত পুরো টা কে ঢেকে রাখা। শুধু প্রয়োজন হলে মুখমণ্ডলী ও হাতের তালু বিনা পর্দায় রাখতে পারে। তাছাড়া সিটিকল ও ইমিটেশন অর্থাৎ সোনা, রুপা ও কাঁচের গয়না বাদ দিয়ে বাকি সমস্ত গয়না মহিলাদের জন্য ব্যবহার করা হলো শরীয়তে নিষিদ্ধ ও নাজায়েজ। সুতরাং নতুন বধূকে তার পিতার বাড়ি থেকে শ্বশুর বাড়ি অর্থাৎ স্বামীর বাড়িতে নিয়ে আসার সময় এই দুইটি মসলা কে লক্ষ্য রাখতে হবে এবং তাকে সজ্জিত করতে হবে এমন ভাবে যাতে শরীয়তের বহির্ভূত কোনো কাজ সম্পন্ন না হয়। অর্থাৎ মাথার চুল থেকে নিয়ে পা পর্যন্ত পর্দা করা এবং সোনা রূপা ও কাচ ব্যতীত অন্যান্য গয়না ব্যবহার না করা এটা হল অপরিহার্য।
✴️বহু জায়গায় আবার দেখা যায় মেয়েকে দুর্গার মত সাজানো হয়, এটাও শরীয়তে জায়েজ নয়। কারণ এখানে অমুসলিমদের সাদৃশ্যতা গ্রহণ করা হয়েছে। আর অমুসলিমদের সাদৃশ্যতা গ্রহণ করা হল শরীয়তে নিষিদ্ধ। নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম ইরশাদ করেন:-
من تشبه بقوم فهو منهم
অর্থাৎ! যে ব্যক্তি অন্য কোন সম্প্রদায়ের সাদৃশ্যতা গ্রহণ করবে কিয়ামতের দিন তাকে তার মধ্যে গণ্য করা হবে।
{{ মুসান্নাফে ইবনে আবী শাইবা হাদিস নং-19401 }}
{{ মুসনাদে আহমদ হাদিস নং-5114 }}
{{ সুনানে আবু দাউদ হাদিস নং-4031 }}
{{ মুসনাদে বাজ্জার হাদিস নং-2966 }}
{{ মুজমে ইবনুল আরাবী হাদিস নং-1137 }}

✴️উপরোক্ত আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে সুস্পষ্ট প্রমাণিত হয়েছে যে, আমাদের উচিত নতুন বধুকে তার বাড়ি থেকে নিয়ে আসার সময় হয়তো ‘ফুল বোরকা’ ব্যবহার করতে হবে অথবা অন্য এমন কাপড় ব্যবহার করতে হবে যাতে মহিলার ফরজ পর্দার উপর আমল হয়ে যায়। এবং সেই মেয়েটি যাতে বুঝতে পারে যে, আমাকে শ্বশুরবাড়িতে পর্দার সহিত চলতে হবে এবং শরীয়ত কে লক্ষ্য রেখেই জীবন অতিবাহিত করতে হবে।
🤲 আল্লাহ তাবারক ওয়া তা’আলা আমাদের সমস্ত যুবক ভাই বোনদের কে বিষয়টি বুঝার শক্তি প্রদান করুন!! এবং সমস্ত যুবক ভাইদের কে উপরক্ত বিষয়টির ওপর আমল করে নিজের স্ত্রীকে নিজের বাড়িতে নিয়ে আসার তৌফিক ও শক্তি দান করুন আমীন!! বি-জাহি সাইয়েদিল মুরসালিন আলাইহিস্ব স্বালাতু ওয়াত তাসলীম।

🌷وما توفيقي الا بالله العلي العظيم و الصلاة والسلام على حبيبه الكريم صلى الله عليه وسلم🌷
✍️মুফতী আমজাদ হুসাইন সিমনানী, প্রেসিডেন্ট সুন্নি মিশন✍️
🌍 থানা- কুশমন্ডি, জেলা- দক্ষিন দিনাজপুর, রাজ্য- পশ্চিমবঙ্গ, ভারত 🌍

নোট:- কোন মসআলা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হলে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন আমাদের
SIMNANI RESEARCH CENTRE & HOLY-WAY TEAM

সমাজের পাশে দ্বীনের খেদমতের জন্য সব সময় আছে।*আমাদের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য-এই লিংকে ক্লিক করুন www.keyofislam.com

আমাদের Real Sunni TvHoly way ইউটিউব চ্যানেল গুলি কে  SUBSCRIBE করুন

Leave a Reply

This Post Has 3 Comments

  1. Moni

    Good one 😊

  2. Abdullah

    Important topic. Go ahead always

  3. Kaneez

    We need more information about marriage.